উপনদী ও শাখা নদীর মধ্যে পার্থক্য

উপনদী ও শাখা নদীর মধ্যে পার্থক্য কী?

উপনদী ও শাখা নদীর মধ্যে পার্থক্য জানার আগে আমাদের উপনদী এবং শাখা নদীর সাথে সামান্য পরিচিত হওয়া দরকার।

উপনদী কাকে বলে?

যখন কোন জলের ছোট স্রোত যা হিমবাহ থেকে উৎপন্ন হয় এবং একত্রে মিলিত হয়ে একটি নদী তৈরি করে তখন সেসব ছোট ছোট স্রোত বা জলধারাকে ঐ নদীর উপনদী বলে।

ধরুন, ক নামের একটি জলস্রোত কোন হিমবাহ থেকে প্রবাহিত হয়ে আসছে। আবার খ নামের আরেকটি জলস্রোত এসে গ নামক স্থানে ক এর সাথে মিলিত হয়েছে।

এখন যদি আমরা মিলন স্থলের নামানুসারে নদীর নাম রাখি গ, তাহলে ক এবং খ হলো গ নদীর উপনদী।

শাখা নদী কাকে বলে?

নদী যখন ছোট ছোট স্রোত বা চ্যানেলে ভেঙ্গে যায় তখন বিভক্ত অংশগুলোকে শাখা নদী বলে।

যেমনটা আমাদের গ নদী উৎপত্তি হয়েছিল, এখন এই গ নদী যদি ৩০০ মাইল পেরিয়ে এসে ঘ নামক কোন স্থানে বিভক্ত হয়ে ঙ এবং চ নামক নদীপথ তৈরি হয়, তবে ঙ এবং চ হবে ঘ নদীর শাখা নদী।

উপনদী ও শাখা নদীর মধ্যে পার্থক্য

উপনদী ও শাখা নদীর মধ্যে পার্থক্য

উপনদী এবং শাখা নদীর মধ্যে পার্থক্য নীচে উল্লেখ করা হলো:

উপনদী
শাখা নদী
১. উপনদী হলো এমন একটি   প্রবাহ যা কোন মূল নদীর সাথে মিলিত হয়েছে১. শাখা নদী হলো মূল স্রোত   বা নদী থেকে যেটি লাইনচ্যুত হয়ে নতুন পথ অতিক্রম করেছে
২. সাগর বা সমুদ্রের সাথে   মিলিত হয় না২. সাগর বা সমুদ্রের সাথে   মিলিত হতেও পারে, নাও পারে
৩. সাধারণত নদীর উপরের   (উঁচু জায়গা থেকে প্রবাহিত হয়ে আসে) অংশে পাওয়া যায়৩. সাধারণত শাখা নদী মূল   নদীর নিচের দিকে পাওয়া যায়
৪. উদাহরণ: পুনর্ভবা হলো পদ্মার উপনদী৪. কপোতাক্ষ পদ্মা নদীর শাখানদী

Leave a Comment

Your email address will not be published.

Social Share Buttons and Icons powered by Ultimatelysocial